বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৮:১৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বর্ষা যখন বিদায় নিচ্ছে তিস্তার পানি তখন ৬০ সেঃমিঃ উপরে গাইবান্ধায় ক্রেতা সেজে দুই গাঁজা ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করল ডিবি’র ওসি ওমানকে হারিয়ে টিকে থাকলো বাংলাদেশ শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে সাবেক ছাত্রনেতা বিপুলের খাদ্য বিতরণ সম্প্রীতি রক্ষা দিবস বিষয়ক গাইবান্ধায় সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সমাবেশ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ভূরুঙ্গামারীতে বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা: গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ ক্রয়কৃত জমি ভোগদখলে বাঁধা, পরিত্রাণ চেয়ে ভুক্তভোগীর সংবাদ সম্মেলন সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে গাইবান্ধায় সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত গাইবান্ধার কামদিয়া বাজারে কাপড়ের দোকানে আগুন; ৪০ লাখ টাকার মালামাল পুড়ে ছাই সাদুল্লাপুরে ঘাঘটের ভাঙনে নিঃস্ব হাজারো পরিবার

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের লাল চামার জমি জমা সংক্রান্তের জের ধরে মারপিট: সুন্দরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের

সঞ্জয় সাহাঃ
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১

গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ভাটি কাপাশিয়া গ্রামের নবির হোসেন গং কর্তৃক জমি জমা সংক্রান্তের জের ধরে সীচা লাল চামার এর কলিম উদ্দিন সহ তার পরিবারের সদস্যদেরকে মারপিট এর ঘটনা ঘটেছে। এতে করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সুন্দরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী কলিম উদ্দিন।

 

সুন্দরগঞ্জ থানার এজাহার সূত্রে জানা গেছে- গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার সীচা লাল চামার গ্রামের মৃত গোলাপ উদ্দিনের পুত্র কলিম উদ্দিনের সাথে ভাটি কাপাশিয়া গ্রামের মৃত: আব্দুল মতিন এর পুত্র নবির হোসেন এর সাথে দীর্ঘদিন ধরে জমি জমা সংক্রান্তের বিরোধ চলছিল। ইতিপূর্বে নবির হোসেন তার মায়ের জায়গা মনে করে কলিম উদ্দিনের মার অংশের জমিতে বাড়ি করে। নবির উদ্দিন ও কলিম উদ্দিন আপন খালাতো ভাই। এতে করে বাদী কলিম উদ্দিন তার মায়ের জায়গা ছেড়ে দিয়ে বাড়ি করার কথা বললে দুজনের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। উক্ত বিরোধের জের ধরে প্রায় সময় বিবাদী নবির উদ্দিন তার খালাতো ভাই কলিম উদ্দিনকে মারপিট সহ খুন জখমের হুমকি দিয়ে আসছিল। তখন বাদী মত বিরোধে না জড়িয়ে মিমাংসার জন্য চলতি সালের গত ১৬ সেপ্টেম্বর দুপুরে শালিস বৈঠকের আয়োজন করলে তারা দলবদ্ধ হয়ে বিভিন্ন অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে এজাহারের ৮ নম্বর বিবাদী মতলব আলী শালিস অমান্য করে তার দেয়া হুকুমে এজাহারের সকল আসামী কলিম উদ্দিন সহ তার ছোটো ভাই হাফিজুর রহমান ও বাদীর জ্যাঠাতো ভাই হাফিজুর রহমানকে হত্যার উদ্দেশ্যে ধারালো ছোরা দিয়ে আঘাত করে হাফিজুর পেটে জখম করে। উক্ত কাটা জায়গায় ডাক্তার ২১ টি সেলাই দিয়েছে। হাফিজুর জখম হয়ে মাটিতে পড়ে গেলে ৩ নং আসামী মিলন মিয়া ধারালো ছোরা দিয়ে হাফিজুরের বা হাতে রক্তাক্ত জখম করে এবং ২ নং আসামী ফয়জার রহনান তার ভাইকে হত্যার উদ্দেশ্যে গলা টিপে ধরে। সে সময় বাদী জীবন বাজি রেখে ফয়জারের হাত থেকে রক্ষা করে। সে সময় ৪ নং আসামী শিপন মিয়া বাদী কলিম উদ্দিনের পকেট থেকে ৭শ টাকা বের করে নেয়। তখন আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এলে বিবাদীরা প্রান নাশের হুমকি সহ বিভিন্ন ভয় ভীতি প্রদর্শন করে চলে গেলে হাফিজুর কে উদ্ধার করে চিকিৎসা জন্য গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে ভর্তি করলে তার শারিরীক অবস্থার অবনতি দেখে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে। বর্তমানে হাফিজুর রংপুরে চিকিৎসাধীন আছেন।

 

অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য বাদী কলিম উদ্দিন সুন্দরগঞ্জ থানায় এজাহার দায়ের করেছেন।

 

বিডি গাইবান্ধা/

সংবাদ টি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:৪৬ পূর্বাহ্ণ
  • ১১:৪৭ পূর্বাহ্ণ
  • ১৫:৫১ অপরাহ্ণ
  • ১৭:৩২ অপরাহ্ণ
  • ১৮:৪৬ অপরাহ্ণ
  • ৫:৫৮ পূর্বাহ্ণ
bdgaibandha.news©2020 All rights reserved
themesba-lates1749691102