বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:১৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আ’লীগ নেতা বকুলের শয্যাপাশে ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রিপন তিস্তার গর্ভে দুইটি বিদ্যালয়, বালু চরে টিনের চালায় পাঠদান গাইবান্ধায় আলোচিত শুভ হত্যা মামলায় চাচাসহ ১০ আসামির সবাই খালাস ডোবার পানিতে পড়ে শিশুর মৃত্যু সাদুল্লাপুর উপজেলার ১১ ইউপি’র গ্রাম পুলিশের মাঝে বাইসাইকেল বিতরণ সাদুল্লাপুর বুজরুক জামালপুরে পায়ের অপারেশন করার জন্য আর্থিক সাহায্যের আবেদন অসুস্থ মশিউর রহমান সিনিয়র সাংবাদিক কাফি’র উপর সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা জানিয়ে প্রতিবাদ সভা নিজের কিডনি বিসর্জন দিয়ে ছেলের জীবন বাঁচালেন ‘মা’ গাইবান্ধা পৌর ঘাঘট লেক উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় দুটি কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উদ্বোধন করলেন হুইপ গিনি গোবিন্দগঞ্জে সম্মিলিত সাংবাদিক পরিষদের বর্ষপূর্তি পালিত: আলোচনা সভা ও কেক কর্তন

সন্তানের সঙ্গে অভিভাবকের আচরণ কেমন হওয়া উচিত? জেনে নিন!

নিউজ ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১

সন্তানদের সঙ্গে আচরনে অভিভাবকদেরও অনেক সচেতন হওয়া প্রয়োজন। অনেক সময় অভিভাবকদের অনেক নেতিবাচক আচরনের প্রভাব সন্তানদের উপর পরে। গুড প্যারেন্টিং এবং ব্যাড প্যারেন্টিং বিষয়টা কে অবশ্যই স্বিকার করতে হবে। আধুনিক সময়ে এসে এটা আমাদের ভাবতে হবে।
অনেক সময় আমরা অভিভাবকরাও ঠিক বুঝিনা সন্তানদের গড়ে তুলতে, দৈনন্দিন জীবনে তাদের সাথে আমাদের আচার আচরন কথা বার্তা কেমন হওয়া উচিত। বা শিশুর সঠিকভাবে বেড়ে ওঠা সৃজনশীল বিকাশে আমাদের ভূমিকা কেমন হওয়া উচিত। অনেক সময় আমাদের অনেক সিদ্ধান্ত বা দিক নির্দেশনা সন্তানদের জন্য খারাপ ও হতে পারে। অনেক সময় আমরা বড়রাও মনের অজান্তে অথবা সচেতনতার অভাবেও অনেক ভুল করি। যা অনেক ক্ষেত্রে সন্তানের জীবনে বিপর্যয় নিয়ে আসে।

• সন্তানদের সামনে কখনো নেতিবাচক কথা বলা যাবে না। সন্তানকে গর্দভ, অপদার্থ, অকাজের, তাকে দিয়ে কিছু হবে না এধরনের কথা বলা বা বলে গালি গালাজ করা যাবে না। পিতামাতার নেতিবাচক কথা বার্তা সন্তানের মনোজগতে স্থায়ীভাবে গেঁথে যায়।

• সন্তানের কোন বিষয়ে দুর্বলতা বা অক্ষমতা নিয়ে কটাক্ষ করা যাবে না বা তাকে কখনো উপহাস করবেন না। এর ফলে সন্তান হীনমন্মতায় ভোগে।

• শিশুর সামনে স্বামী স্ত্রী ঝগড়া করবেন না। এসব শিশুরা নানা ধরনের মানসিক সমস্যায় ভোগে। যদি কোন কারণে মতপার্থক্য বা কথা কাটাকাটি হয়ে যায়, তাহলে অবশ্যই সন্তানের সামনেই তা মীমাংসা করবেন। অথবা নিজেদের মধ্যেকার ঝগড়া সন্তানের উপস্থিতিতে করবে না।

• আপনি নিজে যা করেন না বা যেই অভ্যাস আপনার নিজের নেই, তা সন্তানকে উপদেশ দিতে যাবেন না।

• শিশুকে মিথ্যা আশ্বাস দিবেন না। যদি আশ্বাস দেন তবে অবশ্যই তা পূরণ করবেন।

• অফিস বা কাজে যাওয়ার সময় অবশ্যই শিশুর সামনে দিয়ে তাকে বলে বের হবেন। শিশু কান্নাকাটি করলেও, কখনো লুকিয়ে বের হবে না। লুকিয়ে যাওয়ার প্রবণতা সারাদিন শিশুর মধ্যে নিরাপত্তহীনতা তৈরী করবে। বা সারাদিন আপনাকে খোজর প্রবণতা তার মধ্যে বিষন্নতা তৈরী করবে।

• আপনার যদি দুই বা তিনজন সন্তান থাকে তাহলে এক সন্তানের সামনে আরেক সন্তানের সাথে তুলনা করবেন না। আপনার এই আচরন শিশুরা বড় হলেও ফলো করবে। এবং নিজেদের ভাইবোনদের মধ্যে এমন আচরন থেকে যাবে। সন্তানদের মধ্যে ভবিষ্যতে সু-সম্পর্ক বা মিল থাকবে না। এর জন্যে আপনিই দায়ী থাকবেন।

• সন্তানদের মধ্যে কোন বৈষ্যম করবেন না। কোন সন্তানের প্রতি আপনার মমতা একটু বেশি থাকতেই পারে, কিন্তু বস্তু দিয়ে তা দৃশ্যমান করতে যাবেন না। ছেলে আপন, মেয়ে পর- এই জাতীয় চিন্তাভাবনা থেকে বিরত থাকুন।

• শাসনের নামে শিশুকে প্রহার করবেন না। শারিরীক প্রহার শিশুর মানসিক বিকাশকে বাধাগ্রস্থ করে এবং অন্য সমস্যাগুলোকে আরও বাড়িয়ে তুলে।

• সন্তানকে কোন বিষয়ে আদেশ বা উপদেশের ক্ষেত্রে- মা ও বাবা দুজনকে অবশ্যই একই ধরনের কথা বলতে। ভিন্ন কথা বললে স্ন্তান বিভ্রান্ত হবে। মা নিষেধ করলেও সেটা বাবার কাছে পূরণ হবে কিংবা বাবা মা কোন কাজে মানা করলেও সেটি দাদা দাদী বা নানা নানী পূরন করবে এ ধরনের আচরন থেকে বিরত থাকতে হবে।

• দোষ নয়, বরং সন্তানের প্রয়াস বা পরিশ্রমের প্রশংসা করুন। কোন কাজ না পারলে চেষ্টা করার জন্য অনুপ্রেরণা দিন।

• সন্তানের সামনে পরিবারের সদস্য বা আত্মীয় স্বজনের নামে সমালোচনা করবেন না।

• সন্তানের লেখাপড়া সংক্রান্ত বিষয়ে তার পছন্দের বিষয়কে গুরুত্ব দিন। জোর করে চাপিয়ে দেবেন না। বয়স কম থাকলে আপনার পছন্দটি তাকে দিয়ে করাতে হলে তার সাথে এ বিষয়ে আলোচনা করুন। এবং যাতে তারও পছন্দ সেরকম পরিস্থিতি তৈরী করুন।

বিডি গাইবান্ধা /উপদেষ্টা/সাংবাদিক আতিকা রহমান

সংবাদ টি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:৩৫ পূর্বাহ্ণ
  • ১১:৫৫ পূর্বাহ্ণ
  • ১৬:১৫ অপরাহ্ণ
  • ১৮:০০ অপরাহ্ণ
  • ১৯:১৪ অপরাহ্ণ
  • ৫:৪৬ পূর্বাহ্ণ
bdgaibandha.news©2020 All rights reserved
themesba-lates1749691102