বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:০৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আ’লীগ নেতা বকুলের শয্যাপাশে ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রিপন তিস্তার গর্ভে দুইটি বিদ্যালয়, বালু চরে টিনের চালায় পাঠদান গাইবান্ধায় আলোচিত শুভ হত্যা মামলায় চাচাসহ ১০ আসামির সবাই খালাস ডোবার পানিতে পড়ে শিশুর মৃত্যু সাদুল্লাপুর উপজেলার ১১ ইউপি’র গ্রাম পুলিশের মাঝে বাইসাইকেল বিতরণ সাদুল্লাপুর বুজরুক জামালপুরে পায়ের অপারেশন করার জন্য আর্থিক সাহায্যের আবেদন অসুস্থ মশিউর রহমান সিনিয়র সাংবাদিক কাফি’র উপর সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা জানিয়ে প্রতিবাদ সভা নিজের কিডনি বিসর্জন দিয়ে ছেলের জীবন বাঁচালেন ‘মা’ গাইবান্ধা পৌর ঘাঘট লেক উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় দুটি কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উদ্বোধন করলেন হুইপ গিনি গোবিন্দগঞ্জে সম্মিলিত সাংবাদিক পরিষদের বর্ষপূর্তি পালিত: আলোচনা সভা ও কেক কর্তন

বৃষ্টি হলেই হাঁটু পরিমাণ কাঁদা, চলাচলে দূর্ভোগ চরমে! স্থানীয় সাংসদের সুদৃষ্টি কামনা

মাসুম বিল্লাহ 
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১৭ আগস্ট, ২০২১
 বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশ ও ডিজিটাল বাংলাদেশ ঘোষণা করা হলেও স্বাধীনতার ৫০ বছরেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি গাইবান্ধার সদর উপজেলার বোয়ালী ইউনিয়নে। ভাগ্যের উন্নয়ন হয়নি এই ইউনিয়নের প্রায় ৪০ হাজার মানুষের। দেশ স্বাধীনের পর থেকে এ পর্যন্ত ক্ষমতার পালা বদল হলেও অবহেলিত এই এলাকার বিশেষ করে যোগাযোগ ব্যবস্থায় তেমন কোনো উন্নয়ন হয়নি। এই ইউনিয়নের ৭০ কি.মি. রাস্তার মধ্যে কেবল পাকা করণ হয়েছে ১৫কি.মি। বাকি ৫৫ কি.মি. কাঁচা রাস্তার বেহাল দশা। দূর্ভোগ কমাতে প্রতিবছরই চাঁদা তুলে এসব রাস্তা মেরামতের চেষ্টা করেন স্থানীয়রা। অথচ ওই এলাকা হতে জেলা শহর মাত্র ৩ কি.মি. আর ১কি.মি. পরেই পৌরসভা। সর্বসাধরণের দূর্ভোগ লাঘবে এসব রাস্তা দ্রুত পাকা করণ করতে ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় সংসদ সদস্যের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন ওইসব এলাকার ভুক্তভোগী জনগন।
সরেজমিনে দেখা গেছে, এসকেএসইন হতে সর্দার এর পুকুরপার অংশে গত বছরের এলাকাবাসীর উদ্যোগে রাস্তা মেরামতে ব্যবহার করা ভাঙ্গা ইটগুলো বৃষ্টির কারণে মাটি ধুয়ে গিয়ে উঁচু-নিচু অবস্থায় রয়েছে। যা পথচারীদের জন্য বিশেষ করে হেঁটে চলা পথচারীদের জন্য দূর্ঘটনার কারণ হতে পারে। এছাড়া এসকেএসইন হতে দক্ষিণে পশ্চিম রাধাকৃষ্ণপুর গ্রামের কুটনীতির মোর হয়ে হরিপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং পশ্চিম রাধাকৃষ্ণপুর জামে মসজিদ হতে ইন্দ্রারপাড়গামী ৭ কি.মি. কাঁচা রাস্তার বিশেষ করে আব্দুল কাফী মিয়ার বাড়ির সামনের অংশে রাস্তায় বেহাল দশা, সৃষ্টি হয়েছে হাঁটু পরিমান কাঁদা।  আর অর্ধেক রাস্তা ভেঙে গেছে পুকুরে। অপরদিকে ইন্দ্রারাপাড়গামী রাস্তার আব্দুল মজিদ মিয়ার বাড়ি হতে, কনকরায় স্কুলগামী এক কি.মি.রাস্তাটির অবস্থা অত্যান্ত  নাজুক। এছাড়া হরিপুর স্কুল হতে কুমারপাড়াগামী রাস্তার আকন্দপাড়ার শামসুল মিয়ার বাড়ির সামনে রাস্তার অবস্থা খুবই খারাপ, একেবারেই চলাচলের অনুপযোগী। অন্যদিকে পূর্ব হরিপুর হতে মিয়ার বাজারগামী রাস্তাটির অবস্থাও শোচনীয়। কাঁদা পানি উপেক্ষা করে জরুরী প্রয়োজনের মানুষগুলো ওইসব রাস্তা দিয়ে বাধ্য হয়ে চলাচল করায় সৃষ্টি হয়েছে অসংখ্য খানা খন্দের। আর ওইসব রাস্তার বড় বড় খানা-খন্দগুলো পূরণ করতে ভাঙা ইট, বালি, শুরকি, খোঁয়া ও রাবিশ ফেলে মেরামতের চেষ্টা করছে স্থানীয়রা।
এলাকাবাসী জানায়, প্রতি বছর বর্ষা এলেই এসব রাস্তায় হাঁটু পরিমাণ কাঁদার সৃষ্টি হয়। এবং তা কয়েকদিন যাবৎ স্থায়ী হয়ে চরম ভোগান্তিতে পড়েন ওই পথ দিয়ে চলা কোমলমতী শিক্ষার্থী, বৃদ্ধ, কৃষক-শ্রমজীবীসহ সব
বয়সের হাজার হাজার মানুষ।  আর এসব খানা খন্দের উপর দিয়ে চলাচলকারী ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক, অটোরিকশা, বাইসাইকেল ও মোটরসাইকেলসহ সকল যানবাহন চলাচলকারীরা পড়ছেন চরম বিপাকে। আর এতে করে অনেক সময় দূর্ঘটনার শিকারও হতে হয় তাদের।
স্থানীয়দের অভিযোগ, এসব রাস্তা মেরামতের জন্য দফায় দফায় ইউপি সদস্য, চেয়ারম্যান ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে একাধিকবার অনুরোধ জানালেও কোনো সুফল মেলেনি। এমনকি রাস্তা সংস্কার কিংবা পাকা করণ কাজেরও কোন উদ্যেগ নেওয়া হয়নি।
এদিকে, এসব রাস্তা দিয়ে চলাচলে দূর্ভোগ কমাতে পশ্চিম রাধাকৃষ্ণপুর ও মিয়ার বাজার এলাকায় স্থানীয়দের উদ্যোগে রাস্তা মেরামত করতে দেখা যায়। এছাড়া হরিপুর এলাকার আকন্দপাড়ার শামসুল মিয়ার বাড়ির সামনের কাঁদা-পানির রাস্তাতেও ভাঙ্গা ইট ফেলে রাস্তা মেরামত করতে দেখা গেছে। এসময় রাস্তা মেরামতে অংশ নেওয়া মানুষগুলোর সাথে কথা বলার চেষ্টা করলে আক্ষেপ প্রকাশ করেন তারা। পশ্চিম রাধাকৃষ্ণপর এলাকায় রাস্তা মেরামতে অংশ নেওয়া উদ্যমি যুবক মিজানুর রহমান বলেন, “প্রত্যেক বছর বর্ষা এলেই রাস্তাটি নষ্ট হয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়। আমরা স্থানীয়রা চাঁদা তুলে, ইট, খোঁয়া, রাবিশ কিনে রাস্তাটি মেরামতের চেষ্টা করছি”।
রাস্তা মেরামতের কাজে অংশ নেওয়া ওই এলাকার হোমিও চিকিৎসক আব্দুর রউফ আক্ষেপ করে বলেন, “প্রতি বছর বর্ষা মৌসুমে রাস্তায় হাঁটু পরিমান কাঁদার সৃষ্টি হয়। এতে এলাকাবাসীর চরম দূর্ভোগ পোহাতে হয়। আমরা শহরতলীর মানুষ, ১ কি.মি. পরেই পৌরসভা, আর ৩ কি.মি. পরেই জেলা শহর। জেলা শহরের সাথে যোগাযেগের প্রধান এ রাস্তাটি দিয়ে হাজার হাজার মানুষ চলাচল করে। স্বাধীনতার এতদিন পরেও রাস্তাটি পাকা না হওয়ায় চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি”। রাস্তাটি দ্রুত পাকা করণের ব্যবস্থা করতে জাতীয় সংসদের হুইপ ও স্থানীয় সাংসদ মাহাবুব আরা বেগম গিনি এমপির সু-দৃষ্টি কামনা করেন তিনি।
পূর্ব হরিপুর গ্রামের মিয়ার বাজার এলাকায় পথচারী সাংবাদিক জামিরুল ইসলাম সম্রাম বলেন,” বোয়ালী ইউনিয়নের অধিকাংশ রাস্তায় কাঁচা। দীর্ঘদিনেও এই রাস্তটির উন্নয়নে কাজ করা হয়নি। পাকা রাস্তা না থাকায় জনবসতির শুরু থেকে অদ্যবধি মাটির রাস্তায় চলাচল করছেন এলাকার মানুষ। মেরামতের অভাবে তাও এখন চলাচল অযোগ্য। ইতোপূর্বে বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের দৃষ্টিগোচর করা হলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। অবশেষে গত বছর গ্রামের একদল তরুণের উদ্যোগে বিত্তবানদের সহযোগিতায় রাস্তাটিতে ভাঙ্গা ইট ফেলে কিছুটা চলাচলের উপযোগী করার চেষ্টা করা হয়েছিল। রাস্তাটি দ্রুত সংস্কারসহ পাকা করণে যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি।
এ ব্যাপারে বোয়ালী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মাজেদ উদ্দিন খান আব্দুল্লাহ “গাইবান্ধাডটনিউজ” কে বলেন, ” আগামীতে ইউনিয়নের পরিষদের কর্মসৃজন প্রকল্পের কাজ শুরু হলে, রাস্তাগুলোতে মাটির কাজ করা হবে”। তবে,এসকেএসইন  হতে হরিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যাওয়ার  রাস্তাটি পাকা করনের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জানিয়েছেন বলেও জানান তিনি।
এবিষয়ে সদর উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ মোল্লা “গাইবান্ধাডটনিউজ” কে বলেন, “গাইবান্ধা সদর উপজেলার আইডিহীন ৩১০টি রাস্তার মধ্যে এসকেএসইনের ওই রাস্তা একটি। আইডি না থাকার কারনে রাস্তাটির কাজ করা সম্ভব হয়নি। তবে রাস্তাটির আইডি হওয়ার জন্য জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে পরিকল্পনা মন্ত্রনালয়ে শুপারিশ পত্র পাঠানো হয়েছে। এখনো গেজেটটি পাশ হয়নি।

সংবাদ টি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:৩৫ পূর্বাহ্ণ
  • ১১:৫৫ পূর্বাহ্ণ
  • ১৬:১৫ অপরাহ্ণ
  • ১৮:০০ অপরাহ্ণ
  • ১৯:১৪ অপরাহ্ণ
  • ৫:৪৬ পূর্বাহ্ণ
bdgaibandha.news©2020 All rights reserved
themesba-lates1749691102