বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৭:১২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বর্ষা যখন বিদায় নিচ্ছে তিস্তার পানি তখন ৬০ সেঃমিঃ উপরে গাইবান্ধায় ক্রেতা সেজে দুই গাঁজা ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করল ডিবি’র ওসি ওমানকে হারিয়ে টিকে থাকলো বাংলাদেশ শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে সাবেক ছাত্রনেতা বিপুলের খাদ্য বিতরণ সম্প্রীতি রক্ষা দিবস বিষয়ক গাইবান্ধায় সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সমাবেশ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ভূরুঙ্গামারীতে বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা: গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ ক্রয়কৃত জমি ভোগদখলে বাঁধা, পরিত্রাণ চেয়ে ভুক্তভোগীর সংবাদ সম্মেলন সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে গাইবান্ধায় সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত গাইবান্ধার কামদিয়া বাজারে কাপড়ের দোকানে আগুন; ৪০ লাখ টাকার মালামাল পুড়ে ছাই সাদুল্লাপুরে ঘাঘটের ভাঙনে নিঃস্ব হাজারো পরিবার

সাদুল্লাপুরের ধাপেরহাটের হাসান পাড়া গ্রামের রাস্তাটিতে যেন কষ্টের শেষ নাই। কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা এলাকাবাসীর

শফিকুল ইসলাম সাগর
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৩ জুলাই, ২০২১

গাইবান্ধা জেলার সাদুল্লাপুর উপজেলার ধাপেরহাট ইউনিয়নের হাসান পাড়া গ্রামের বেহাল অবস্থা।যেন দেখার কেউ নেই। সামান্য বৃষ্টি হলেই হাটু কাঁদায় ভরপুর হয়ে যায়। পথচারী ও এলাকাবাসির যেন কষ্টের শেষ নাই। রাস্তাটি সাদুল্লাপুর রোড বাজার পাড়া থেকে শুরু হয়ে হাসান পাড়ার ভিতর দিয়ে খামার পাড়া গিয়ে শেষ হয়।প্রায় দুই কিলোমিটার রাস্তাটি তিন গ্রামের মানুষের একমাত্র যাতায়াতের মাধ্যম(হাসান পাড়া,খামার পাড়া প গোবিন্দ পুর) ।

এ রাস্তাটি তিন গ্রামের মানুষের ধাপেরহাটে যাতায়াতের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।৷ এই সকল গ্রামে ব্যাপক কাচামাল উৎপাদন হয়। সোমবার ও বৃহস্পতিবার কাছেই ধাপেরহাট বাজারে নিয়ে বিক্রি করতে হয়। রাস্তার এমন পরিস্থিতিতে ভ্যানে করে বাজারে পন্য সামগ্রি নিয়ে যাওয়া দুরুহ হয়ে পড়ে। কাচামালের এলাকা হিসেবে পরিচিত এই তিন গ্রামের মানুষের প্রানের দাবি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে যেন রাস্তাটির দিকে সু-নজর দেন। পুরো বর্ষা মৌসুমে এ রাস্তায় চলাচল একেবারে অসম্ভব হয়ে পড়ে। এব্যাপারে এলাকার অনেকে বলেন আমাদের এই রাস্তাটি যদি কেউ ঠিক করে দিত তাহলে আমরা তার জন্য আল্লাহর দরবারে হাত তুলে দোয়া করতাম। বর্ষা আসলে এ রাস্তা দিয়ে খুব কষ্ট করে চলাচল করতে হয়। রাস্তার বেশির ভাগ অংশই কাঁদায় পরিপূর্ণ হয়ে যায়। এমনিতেই লাল মাটি খুব শক্ত কিন্তু পানি পেলেই কাঁদা হয়ে যায়। এমতাবস্থায় এ রাস্তায় কোনো ভাবে যদি কেউ রাবিশ হোক বা সাদা মাটি দিয়ে দিত তাও চলাচল করা যেত।এমনি কথা গুলো বলছিলেন ভুক্ত ভুগী এলাকাবাসী ও পথচারী। কিছু কিছু জায়গায় গর্তের সৃষ্টি হওয়ার কারনে এ রাস্তায় তেমন ভ্যান ও এখন পাওয়া যায় না। সব মিলিয়ে এ রাস্তা দিয়ে প্রায় চার থেকে পাঁচ হাজার লোকের যাতায়াত। তাই এই রাস্তাটি তিন গ্রামের মানুষের কথা চিন্তা করে দ্রুত কিছু একটা ব্যবস্হা করলে উক্ত গ্রামের মানুষের কষ্ট হয়তো লাঘব হত।বিষয়টি যথাযথ কর্তৃপক্ষের আশু সুদৃষ্টি কামনা করেছেন এলাকার সাধারণ মানুষ ও পথচারীগন।

সংবাদ টি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:৪৬ পূর্বাহ্ণ
  • ১১:৪৭ পূর্বাহ্ণ
  • ১৫:৫১ অপরাহ্ণ
  • ১৭:৩২ অপরাহ্ণ
  • ১৮:৪৬ অপরাহ্ণ
  • ৫:৫৮ পূর্বাহ্ণ
bdgaibandha.news©2020 All rights reserved
themesba-lates1749691102