বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ০১:১৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
তিস্তা, সানিয়াজান ও ধরলার পানি বৃদ্ধি, দেখা দিয়েছে বন্যা গোবিন্দগঞ্জে প্রসাধনীর নকল কারখানায় সাংবাদিক কে আটকে মারধর ঘটনায় সেই চপল গ্রেফতার সড়ক দূর্ঘটনা প্রতিরোধে এসকেএস স্কুল & কলেজে ট্রাফিক এ্যাওয়ারনেস প্রোগ্রাম সাংবাদিক আটকে মারধর ঘটনার ভিডিও ভাইরাল”থানায় অভিযোগ দায়ের পলাশবাড়ীর পবনাপুরে তাঁতীলীগের কমিটি অনুমোদন বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনসহ ৫দফা দাবী আদায়ে গাইবান্ধায় বাম গণতান্ত্রিক জোটের বিক্ষোভ ধাপেরহাটের মধু দাসের বাড়ি ভাংচুর ঘটনায় আবারও গ্রেফতার- ২ নড়াইল’র শিক্ষক স্বপন কুমার বিশ্বাস কে লাঞ্চনাকারীদের বিচারের দাবীতে গাইবান্ধায় প্রতিবাদ সমাবেশ একই সঙ্গে জন্ম নেয়া তিনকন্যা ও প্রসূতি মায়ের দায়িত্ব নিলেন গাইবান্ধার পুলিশ সুপার পুরুষ কেন নারীকে ছেড়ে যায়, আগ্রহ হারায়?

আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা; পলাশপাড়ায় মালিকানাধীন জমি দখল করে রাস্তা তৈরীর অভিযোগ

জিল্লুর রহমান পলাশ
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ২১ জুন, ২০২১

আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে গাইবান্ধার পলাশপাড়ায় মালিকানাধীন জমি দখল করে একটি পরিবারের জন্য রাস্তা তৈরীর অভিযোগ উঠেছে। পৌর শহরের ৪ নং ওয়ার্ডের মো. রফিউল কাদের চন্দন হাজীর ক্রয় করা ৩২৪৯ দাগের জমির ৪ ফিট পানি নিস্কাশনের ড্রেন দখলে নিয়ে রাস্তাটি তৈরী করা হয়| গাইবান্ধার পৌর সভার মেয়র মতলুবর রহমানকে ম্যানেজ করে প্রতিপক্ষ আবু বক্কর সর্দার ও তার ভাই হায়দার আলীর বিরুদ্ধে এই রাস্তা তৈরীর অভিযাগ উঠেছে।

জমির মালিক রফিউল কাদের চন্দন হাজি জানান, ক্রয় সূত্রে গোবিন্দপুর মৌজার জেএল নং ৯৯ ও ৩২৪৯ নং দাগের (হাল দাগ নং ৬২৩৫, ডিবি নং ৩৮২৭) ৯ শতক জমির মালিক তিনি। একই সঙ্গে ৩২৫০ দাগের জমিসহ মোট ১৮.২৫ শতক জমির মালিকও তিনি। উক্ত ৩২৪৯ নং দাগের জমির পূর্ব পাশে উত্তর-দক্ষিণ বরাবর ৪ ফিট প্রস্ত ও ৫৫ ফিট দুরত্বের জমি পানি নিস্কাশনের জন্য ব্যবহার করে আসছেন। কিন্তু প্রতিপক্ষ আবু বক্কর সর্দার ও তার ভাই হায়দার আলী পানি নিস্কাশনের ড্রেনটি রাস্তা হিসেবে ব্যবহারের পায়তারা করেন। অথচ প্রতিপক্ষের পরিবারের চলাচলের জন্য উত্তর-দক্ষিণে ও পূর্ব-পশ্চিমে একটি রাস্তা রয়েছে। এ নিয়ে প্রতিপক্ষের সঙ্গে বিরোধ সৃষ্টি হলে আদালতের দ্বারস্থ হয়ে পিটিশন মামলা নং ৩৭৮/২০২০ (অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট, গাইবান্ধা সদর) দায়ের করেন তিনি।

রফিউল কাদের আরও জানান, মামলাটি আমলে নিয়ে ১৪৪/১৪৫ ধারা নিষেধাজ্ঞা জারি করাসহ সহকারী কমশিনার (ভূমি) গাইবান্ধা সদরকে তদন্তের আদেশ দেয় আদালত। আদালতের আদেশে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে উভয় পক্ষকে বিরোধপূর্ণ জমিতে আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখার বিষয়টি নোটিশে অবগত করেন। এছাড়া আদালতের আদেশে সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি মো. নাহিদুর রহমান ও সার্ভেয়ার আবুল কালাম আজাদ সরেজমিন তদন্ত করেন। তদন্ত শেষে উভয়ে গত ১৮ জানুয়ারী আদালতে পৃথক প্রতিবেদন দাখিল করেন।

রফিউল কাদেরের অভিযোগ, আদালতের নিষেধাজ্ঞা সত্বেও প্রতিপক্ষ আবু বক্কর সিদ্দিক ও হায়দার আলী রাতের আধারে জায়গাটি দখলে নিয়ে রাস্তা তৈরী করেন। এ ঘটনায় পৌর মেয়র মতলুবর রহমান, ওয়ার্ড কমিশনার রোকনুজ্জামান সুমনসহ স্থানীয় লোকজনের উপস্থিততে কয়েক দফায় সালিশ বৈঠকও হয়। কিন্তু বৈঠকে একতরফাভাবে রাস্তা তৈরীর সিদ্ধান্ত হয়। এমনকি বৈঠকে অনুপস্থিতি সত্বেও রাস্তা তৈরীর জন্য তাকে পৌরসভা থেকে নোটিশ দেয়া হয়। মূলত প্রতিপক্ষ আবু বক্কর সর্দার ও হায়দার আলী পৌরসভার মেয়র মতলুবর রহমানকে ম্যানেজ করে গত ১৯ মে ইটের সিসি ঢালাই দিয়ে রাস্তার কাজ করেন। অথচ প্রতিপক্ষের পরিবার ছাড়া রাস্তাটি দিয়ে অন্য কারো চলাচলের প্রয়োজন নেই। আদালতের নিষেধাজ্ঞাসহ রাস্তা তৈরীর বিষয়টি তাৎক্ষণিক সদর থানায় লিখিত অভিযোগ করলেও পুলিশ তা আমলে নেয়নি বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে বাড়িতে গিয়েও পাওয়া যায়নি অভিযুক্ত আবু বক্কর সর্দার ও তার ভাই হায়দার আলীকে। পরে আবু বক্করের মুঠফোনে কয়েকবার ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি। আর মুঠফোনে গাইবান্ধা পৌর মেয়র মতলুবর রহমান রাস্তাটি পৌরসভার বলে দাবি করে জানান, নির্বাচিত হওয়ার আগ থেকেই বিষয়টি নিয়ে উভয়ের দ্বন্ধ চলছিলো। সম্প্রতি পৌরসভা থেকে রাস্তাটি পাকা করা হয়েছে। তবে ম্যানেজ কিংবা জোরপূর্বক রাস্তা তৈরীর অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তিনি।

বিডি গাইবান্ধা ডট নিউজ / সম্পাদক

সংবাদ টি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৪৭ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:০৪ অপরাহ্ণ
  • ১৬:৪১ অপরাহ্ণ
  • ১৮:৫৩ অপরাহ্ণ
  • ২০:২০ অপরাহ্ণ
  • ৫:১২ পূর্বাহ্ণ
bdgaibandha.news©2020 All rights reserved
themesba-lates1749691102