বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ০৬:০১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
গোবিন্দগঞ্জে এক মর্মান্তিক সড়ক দুঘর্টনায় একই পরিবারের ৪ অটোভ্যান যাত্রী নিহত সাদুল্লাপুরে লটারীর মাধ্যমে যত্ন প্রকল্প (আইএসপিপি) এর ভাতাভোগী নির্বাচন করনা ভাইরাসঃ লকডাউন প্রথমদিন গাইবান্ধায় সচেতনতারোধে মানুষের মাঝে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ করলেন পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম!! গাইবান্ধায় গরীব অসহায় ব্যাক্তিদের মাঝে আস সুন্নাহ ফাউন্ডেশন ইফতার সামগ্রী বিতরন!! গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় সাদুল্যাপুরের কামারপাড়ার প্রসুতির মৃত্যুঃ দায় এড়াতে পারেনা সেই ডাক্তার!! শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তুকি দিয়ে সকল শিক্ষার্থীর বেতন ফি মওকুফ সহ ৩দফা দাবিতে- মিছিল ও সমাবেশ সংবাদ সম্মেলনে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার দাবী পরিবারেরঃ সাদুল্লাপুরে সিএনজি মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে যুবক নিহত গাইবান্ধায় সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিক সুমন মন্ডলের উপর হামলার ঘটনায় ২ পেশাদার জুয়ারি গ্রেফতার সাদুল্লাপুরে বিনামূল্যে কৃষি যন্ত্রপাতি বিতরণ

মাটি পাচারে ছুটছে অর্ধশতাধিক অবৈধ ট্রাক্টর-মহেন্দ্র সাদুল্লাপুরে ৮টি স্থানে রাতভর চলে কৃষি জমির মাটি বিক্রির মহাউৎসব; হুমকিতে বাঁধ ও বিদ্যুতের খুঁটি

জিল্লুর রহমান পলাশ, গাইবান্ধা
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৬ মার্চ, ২০২১

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরের হামিন্দপুর, জামুডাঙ্গা ও মোল্লাপাড়াসহ ৮টি এলাকায় নির্বিচারে ফসলি জমিসহ খাস জমির মাটি কেটে বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে। রাতের আঁধারে স্থানীয় মাটি-বালু ব্যবসায়ী একটি সংঘবদ্ধ চক্র কৃষকদের নামমাত্র মূল্য দেয়াসহ অনেকের জমি থেকে জোরপূর্বক মাটি কেটে রমরমা বাণিজ্য চালাচ্ছেন। এছাড়া চক্রটির বিরুদ্ধে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের ভেঙে যাওয়া স্থানের মাটি এবং নীলকান্তের ছড়ার (সরকারী খাস) জমির মাটিও গভীর করে কেটে নেওয়ার অভিযোগ করছেন স্থানীয়রা। এমনকি পল্লী বিদ্যুতের খুঁটি বসানো জমি থেকেও ৫-৬ ফুট গর্ত করে চক্রটি মাটি লুট করায় ঝুঁকিপূর্ণ হয়েছে বিদ্যুতের খুঁটি। মাটি কেটে পাচারের এলাকার অনেক কৃষি জমি নষ্ট ও পুকুরে পরিণত হওয়াসহ আশপাশের জমি পড়েছে ভাঙনের মুখে। উত্তোলিত মাটি অর্ধশতাধিক ট্রাক্টর-মহেন্দ্র দিয়ে পাচার করা হচ্ছে বিভিন্ন এলাকায়। ট্রাক্টর-মহেন্দ্রর বিরামহীন চলাচলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ও সাদুল্লাপুর-নলডাঙ্গা পাকা সড়কসহ উপজেলার বিভিন্ন সড়ক। পাশপাশি বিকট আওয়াজ আর ধুলাবালির কারণে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে আশপাশের জনজীবন।

শুধু জামুডাঙ্গা ও মোল্লাপাড়া নয়, সংঘবদ্ধ চক্রটি হামিন্দপুর, মণ্ডলপাড়ার চর, বাঁধের মাথা, ব্রীজের পশ্চিম পাশ ও পাটনিপাড়ায় স্পট করে ফসলি জমির মাটি কেটে বিক্রি করছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরেই মাটি বিক্রির মহাষজ্ঞে মেতেছেন বালুখেকো ফুল মিয়া তার ছেলে জুয়েল ও স্থানীয় শফি, চিনু, কামরুল এবং বাবলুসহ একটি সংঘবদ্ধ চক্র। তারা প্রতিরাতে লাখ লাখ টাকার মাটি কেটে ৩০ থেকে ৪০টি ট্রাক্টর ও মহেন্দ্র দিয়ে বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি করছে। প্রকাশ্যে মাটি কেটে বিক্রির হিড়িক চললেও রহস্যজনক কারণে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, পুলিশ ও প্রশাসনের নীরবতায় ক্ষোভ বিরাজ করছে স্থানীয়দের মাঝে।

শুক্রবার বিকেলে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ঘাঘট নদীর তীর ঘেঁষে মালিকানা ফসলি জমি ছাড়াও নদীর তলদেশ এবং সরকারী খাস নীলকান্তের ছড়ার (ইজারাভুক্ত) জমি থেকেও গভীর গর্ত করে মাটি কেটে নেওয়া হচ্ছে। এছাড়া মোল্লাপাড়ার হামিদ, কুদ্দুস ও সিদ্দিকের ২ বিঘা উচু জমিতে এক্সকাভেটর (ভেকু) মেশিন বসিয়ে মাটি কেটে পাচারে ওই জমি পুকুরে পরিণত হয়েছে। চিহ্নিত বালু খেকো জুয়েল মিয়াসহ ৪-৫ জন ব্যবসায়ী রাতের আঁধারে ড্রাম ট্রাকে করে ওই জমির মাটি গাইবান্ধায় বিক্রির অভিযোগ করেন আশপাশের বাসিন্দারা।

বাঁধের মাথা এলাকার খলিল মিয়া, চাঁন মিয়া ও আল-আমিনসহ স্থানীয়রা জানান, চিহ্নিত বালু খেকো ও ভূমিদস্যু অবাধে কৃষি জমি ছাড়াও নদীর চর ও সরকারী খাস নীলকান্তের ছড়ার মাটি কেটে বিক্রি করছেন। তারা রাতের আঁধারে ২০০-৩০০ ট্রাক্টর-মহেন্দ্র দিয়ে উপজেলা ছাড়াও জেলা শহরে লাল-লাখ টাকার মাটি বিক্রি করছে। এতে এলাকার অনেক জমি বড় গর্তসহ পুকুরে পরিণত হয়েছে। এছাড়া মাটি বহণে বেপরোয়া গতিতে বাঁধের ওপর দিয়ে যাতায়াত করছে এসব ট্রাক্টর ও মহেন্দ্র। ভোররাত পর্যন্ত বিকট শব্দে এসব ট্রাক্টর চলাচলে নির্ঘুম রাত কাটছে মানুষের।

তবে মাটি কাটার মহাউৎসবের বিষয়টি জানা নেই সাদুল্লাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. নবীনেওয়াজের। মুঠফোনে প্রতিবেদকের মাধ্যমে খবর পেয়ে ইউএনও বলেন, ‘কোন অবস্থায় ফসলি জমির মাটি বিক্রি করা যাবেনা। যারা অবৈধভাবে মাটি কেটে পাচার করছে তাদের বিরুদ্ধে দ্রুতই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে’।

এ বিষয়ে সাদুল্লাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুদ রানা জানান, মাটি ও বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে পুলিশ-প্রশাসনের অভিযান অব্যহত রয়েছে। বাঁধের মাথাসহ যেসব জায়গায় ফসলি জমির মাটি কেটে পাচার হচ্ছে সেখানে পুলিশ পাঠিয়ে তা বন্ধে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া নির্দেশনা সত্বেও রাতের বেলা অবৈধ ট্রাক্টর-ট্রলি মাটি সরবরাহ করলে তা আটক করা হয়। সেই সঙ্গে নির্দেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদ টি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:২২ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:০২ অপরাহ্ণ
  • ১৬:৩০ অপরাহ্ণ
  • ১৮:২৪ অপরাহ্ণ
  • ১৯:৪০ অপরাহ্ণ
  • ৫:৩৭ পূর্বাহ্ণ
bdgaibandha.news©2020 All rights reserved
themesba-lates1749691102