রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৪৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
গাইবান্ধায় ব্যবসায়ী হাসানের স্ত্রীর মামলা নেয়নি পুলিশ, ঘটনা তদন্তে ৩ সদস্যর কমিটি গঠন; আ.লীগ নেতা মাসুদকে বহিস্কার গাইবান্ধার বিশিষ্ট জুতা ব্যবসায়ী হাসান আলীকে হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত!! সাংবাদিক আমিরুল ইসলাম কবিরের ছোট ভাই ফিরোজের জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন সুদের টাকা দিতে ব্যর্থঃ গাইবান্ধা শহরের আওয়ামীলীগ নেতা কুখ্যাত সুদারু মাসুদ রানার বলি হলেন জুতা ব্যবসায়ী হাসান!! সাদুল্লাপুরের রসুলপুর রাস্তাটির বেহাল অবস্থা সুন্দরগঞ্জে মসজিদ কমিটির পদ নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৭; থানায় লিখিত অভিযোগ কু-নাম করে সুনামগঞ্জের পথে দুর্নীতির বরপুত্র শিক্ষা কর্মকর্তা আঃ ছালাম সাদুল্লাপুরে কম্বাইন হারভেস্টার বিতরণ করলেন উপজেলা চেয়ারম্যান বিপ্লব বাঘাইছড়িতে হত্যা-দুর্নীতির দায় এড়াতে বদলির তদবিরে ব্যস্ত বিতর্কিত সেই পিআইও নুরুন্নবী জাপানের “বেষ্ট পেপার অ্যাওয়ার্ড’’পেলেন হাবিপ্রবি অধ্যাপক ড. রাজু

চার পুলিশকে পিটিয়ে হত্যা: কচ্ছপ গতিতে চলছে বিচার

পিয়ারুল ইসলাম, গাইবান্ধা
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

২০১৩ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর ফাঁসির রায় ঘোষণার দিন গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলাজুড়ে নারকীয় তাণ্ডব চালায় জামায়াত-শিবির। সেদিন হরতালের নামে তারা বামনডাঙ্গা পুলিশ ফাঁড়িতে ঢুকে চার পুলিশ সদস্যকে পিটিয়ে হত্যা করে। আজ সেই নির্মম হত্যাকাণ্ডের অষ্টম বছর।

চাঞ্চল্যকর এই হত্যাকাণ্ডের আট বছর পেরিয়ে গেলেও বিচারক সংকটের কারণে মামলার বিচারকার্য অনেকটাই থমকে গেছে। কচ্ছপ গতিতে চলছে দেশ কাপানো এই মামলার বিচারিক কার্যক্রম।

হত্যাকাণ্ডের আট বছর অতিবাহিত হলেও এ মামলার ৭৪ জন স্বাক্ষীর মধ্যে আদালতে স্বাক্ষ্য দিয়েছেন মাত্র ১৫ জন স্বাক্ষী। এতে করে এই মামলার দীর্ঘ সময়ক্ষেপন হওয়ায় ক্ষুব্ধ সুন্দরগঞ্জবাসী ও নিহতদের পরিবার।

এ বিষয়ে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিউকিটর (পিপি) ফারুক আহম্মেদ প্রিন্স জানান, চার্জসীট দেয়ার পর মামলাটি সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত থেকে অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ আদালতে স্থান্তারিত হয়েছে। এরপর থেকে গত এক বছর ধরে অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ আদালতে বিচারক নেই। এ কারণে মামলাটির বিচারকার্য বিলম্ব হচ্ছে।

ইতিমধ্যে এ মামলার পনের জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহণ নেয়া হয়েছে। দ্রুত মামলাটি জেলা দায়রা জজ আদালতে স্থানান্তরিত করে বিচার কাজ নিষ্পত্তি করে রায় ঘোষণার আশ্বাস রাষ্ট্রপক্ষের এই আইনজীবী।

চার পুলিশ হত্যায় জামায়াত-শিবিরের সংশ্লিষ্ট রয়েছে জানিয়ে মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে ফারুক আহম্মেদ প্রিন্স জানান, ২৮ ফেব্রুয়ারি সকাল থেকে সুন্দরগঞ্জ উপজেলার কঞ্চিবাড়ি, বেলকা, দহবন্দ, হরিপুর, বামনডাঙ্গা, সর্বানন্দ, রামজীবন ও ধোপাডাঙ্গা ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষোভ-মিছিল করে জামায়াত-শিবিরের নেতা-কর্মীরা। এ দিন বামনডাঙ্গা বাজার, শোভাগঞ্জ বাজার, ছাইতানতলা বাজার, বামনডাঙ্গা রেলস্টেশন, রেলের প্রকৌশল অফিস, বামনডাঙ্গা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র, আওয়ামী লীগের কার্যালয়, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কার্যালয়, হিন্দু সম্প্রদায়ের ঘরবাড়িসহ বিভিন্ন স্থাপনায় ভাঙচুর-লুটপাট চালায় তারা। বামনডাঙ্গা রেল স্টেশনের রেল লাইন উপড়ে ফেলাসহ বহু স্থাপনা জ্বালিয়ে দেয় হয়েছিল ওই দিন।

২০১৩ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি দুপুরে মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর ফাঁসির রায় ঘোষণার পরপরই সুন্দরগঞ্জ উপজেলাজুড়ে নারকীয় তাণ্ডব চালায় জামায়াত-শিবির। সেদিন হরতালের নামে তারা বামনডাঙ্গা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে গিয়ে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে। একপর্যায়ে সেখানে থাকা চার পুলিশ সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা করে তারা।

এই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী হয়ে প্রতিবাদ করায় জিহ্বা কেটে ও চোখ উপড়ে হত্যা করা হয় গংশারহাটের এক আওয়ামী লীগ সমর্থককেও।

সেদিনের জ্বালাও-পোড়াও, ভাঙচুর ও হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় তৎকালীন সুন্দরগঞ্জ থানার উপ-পরির্দশক (এসআই) আবু হানিফ বাদি হয়ে ৮৯ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও আড়াই হাজার ব্যক্তিকে আসামি করে সুন্দরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন।

২০১৪ সালের ২২ সেপ্টেম্বর অধিকতর তদন্ত শেষে সুন্দরগঞ্জ থানার তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাম্মেল হক ২৩৫ জনকে অভিযুক্ত করে গাইবান্ধা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ৩২ পৃষ্টার অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করেন।

পুলিশ বলছে, চার্জশিটভুক্ত ৩৩৫ আসামির মধ্যে একজন আসামির মৃত্যু হয়েছে। বাকিদের মধ্যে ২২৯ জনকে গ্রেফতার করা হলেও তারা সবাই জামিনে মুক্ত। এছাড়া মামলার প্রধান আসামি গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের জামায়াত দলীয় সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুল আজিজ ওরফে ঘোড়ামারা আজিজসহ পাঁচ আসামি দেশের বাইরে পলাতক থাকায় তাদের গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

নিহত পুলিশ সদস্যরা হলেন, গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার খামার ধনারুহা গ্রামের মৃত এছাহাক আলীর ছেলে নাজিম উদ্দিন, রংপুর জেলার পীরগাছা উপজেলার রহমতচর গ্রামের মৃত আনছার আলীর ছেলে তোজাম্মেল হক, কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট উপজেলার কিশামত গোবধা গ্রামের আবু শামার ছেলে হজরত আলী এবং বগুড়া জেলার সোনাতলা উপজেলার ঠাকুরপাড়ার তফিজ উদ্দিনের ছেলে বাবলু মিয়া।

এদিকে, ২৮ ফেব্রয়ারির এই দিনটিকে সুন্দরগঞ্জবাসী ট্র্যাজেডি দিবস হিসেবে প্রতি বছর স্মরণ করে আসছে। এ উপলক্ষে নিহত চার পুলিশ সদস্যদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা সদর ও বামনডাঙ্গায় শোক র‌্যালি, নিহত ৪ পুলিশের স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পমাল্য অর্পণ, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

সংবাদ টি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:২৮ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:০৩ অপরাহ্ণ
  • ১৬:৩০ অপরাহ্ণ
  • ১৮:২২ অপরাহ্ণ
  • ১৯:৩৭ অপরাহ্ণ
  • ৫:৪১ পূর্বাহ্ণ
bdgaibandha.news©2020 All rights reserved
themesba-lates1749691102