বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ০৪:২০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
গোবিন্দগঞ্জে এক মর্মান্তিক সড়ক দুঘর্টনায় একই পরিবারের ৪ অটোভ্যান যাত্রী নিহত সাদুল্লাপুরে লটারীর মাধ্যমে যত্ন প্রকল্প (আইএসপিপি) এর ভাতাভোগী নির্বাচন করনা ভাইরাসঃ লকডাউন প্রথমদিন গাইবান্ধায় সচেতনতারোধে মানুষের মাঝে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ করলেন পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম!! গাইবান্ধায় গরীব অসহায় ব্যাক্তিদের মাঝে আস সুন্নাহ ফাউন্ডেশন ইফতার সামগ্রী বিতরন!! গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় সাদুল্যাপুরের কামারপাড়ার প্রসুতির মৃত্যুঃ দায় এড়াতে পারেনা সেই ডাক্তার!! শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তুকি দিয়ে সকল শিক্ষার্থীর বেতন ফি মওকুফ সহ ৩দফা দাবিতে- মিছিল ও সমাবেশ সংবাদ সম্মেলনে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার দাবী পরিবারেরঃ সাদুল্লাপুরে সিএনজি মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে যুবক নিহত গাইবান্ধায় সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিক সুমন মন্ডলের উপর হামলার ঘটনায় ২ পেশাদার জুয়ারি গ্রেফতার সাদুল্লাপুরে বিনামূল্যে কৃষি যন্ত্রপাতি বিতরণ

গাইবান্ধার রঘুনাথপুরে শত্রুতার জেরে কবুতর চুরি,বিষ প্রয়োগে ৭০টি হাঁস হত্যা,মারপিটে শিশুসহ ৪জন আহত থানায় মামলা

আমিরুল ইসলাম কবির
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

গাইবান্ধার রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জেরে খামারী আহাদুলের দামী টাকার সিরাজী জাতের কবুতর চুরি। ধরা পড়ে কবুতর ফেরত। পরে ক্ষিপ্ত হয়ে চোর গং-দের বিষ প্রয়োগে হাঁস ফার্মের ৭০টি হাঁস হত্যা। বাঁধা নিষেধ করলে চোর নুর আলম গং-রা হাঁস ও কবুতর মালিক আাহদুল, স্ত্রী ও তাদের দুই শিশু নাবালক ছেলেকে মারপিটে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে। এ ব্যাপারে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী আহাদুল।

মামলার বিবরণে প্রকাশ, গাইবান্ধা সদর থানার রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামের মৃত মতিয়ার রহমানের ছেলে খামার ব্যবসায়ী আহাদুলের সাথে একই গ্রামের প্রতিবেশী নুর ইসলামের ছেলে নুর আলম গং-দের সাথে পারিবারিক ও সামাজিক বিষয়াদি নিয়ে মনোমালিন্য চলে আসছিলো। আর এরই ধারাবাহিকতায় প্রতিপক্ষ নুর আলম প্রায় দু পূর্বে আহাদুলের ৪২ হাজার টাকা দামের ৬ জোড়া সিরাজী জাতের কবুতর তার খামার থেকে চুরি করে নিয়ে যায়। এ কবুতরগুলো চুরির কথা এবং কবুতরের সন্ধান পান মালিক আহাদুল। পরে কবুতর ফেরত দেয় চোর নুর আলম এবং আর কোনো ক্ষতি করবে না বলে অঙ্গীকার করে। কিন্তু থেমে থাকেনি নুর আলমের ক্ষতির পরিকল্পনা সে সুযোগ খুঁজতে থাকে।

একপর্যায়ে গত ১১ ফেব্রুয়ারী আহাদুলের হাঁসের ফার্মের পাশের জমিতে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ভোর রাতে বিষ প্রয়োগ করে। আর এ বিষপানে ৭০টি হাঁস মারা যায়। এ বিষয়ে পরদিন ১২ ফেব্রুয়ারি এলাকাবাসীকে অবগত সহ কেনো বিষ প্রয়োগে হাঁসগুলো হত্যা করা হলো তার প্রতিবাদ করে ক্ষতিগ্রস্ত আহাদুল।

আর এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উক্ত কবুতর চোর ও বিষপ্রয়োগে হাঁস হত্যাকারী নুর আলম সোহাগ সরদার,ইয়াছিন আলী মন্টু গং-রা সংঘবদ্ধ হয়ে লাঠিসোডা, লোহার রড ও ধারালো অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে ১২ ফেব্রুয়ারি সকাল সাড়ে দশটার দিকে আহাদুলের বাড়ির উঠানে এসে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। এতে বাধানিষেধ করলে নুর আলম গং-রা আচমকা এলোপাথাড়ি মার ডাং শুরু করে মাথা ফেটে দিয়ে হথ্যার চেষ্টা করা হয়। এতে গুরুতর আহত হয় আহাদুল (৪৫)। এসম স্বামীকে বাঁচাতে এগিয়ে এলে স্ত্রী ফেরদৌসী বেগম (৪২) ও তাদের দুই নাবালক ছেলে শুভ মিয়া (১৫) ও সৌরভ মিয়াকে মার ডাং এ গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে সশস্ত্ররা। তাদের আত্মচিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে তাদের উদ্ধার করে গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে দেন। এ সময় চিকিৎসক আহাদুলের মাথায় ৮টি সেলাই, তার স্ত্রী ফেরদৌসীর মাথায় ৬টি সেলাই ছোট ছেলে সৌরভের মাথায় ৭টি সেলাই দেন। তাদের হাত ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে ভেঙ্গে গেছে বলে আহতরা জানান। তাদের অবস্থা গুরুতর।

এব্যাপারে গাইবান্ধা সদর থানায় ভুক্তভোগী আহাদুল বাদী হয়ে নুর আলম সহ ৯জনকে আসামি করে ১৩ ফেব্রুয়ারি একখানা মামলা (নং ৩০) দায়ের করেন।

আর এ মামলা দায়েরের পর আসামি ও তার পক্ষের লোকজন মামলার সাধ মিটে দেবে এবং মামলা তুলে নেয়াসহ বিভিন্ন ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করছে বলে ভুক্তভোগী আহাদুল তার পরিবার এ প্রতিবেদককে জানান। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী পরিবারটি সংশ্লিষ্ট উর্ধতন কর্তৃপক্ষ জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।√#

সংবাদ টি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:২২ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:০২ অপরাহ্ণ
  • ১৬:৩০ অপরাহ্ণ
  • ১৮:২৪ অপরাহ্ণ
  • ১৯:৪০ অপরাহ্ণ
  • ৫:৩৭ পূর্বাহ্ণ
bdgaibandha.news©2020 All rights reserved
themesba-lates1749691102