মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১, ১০:০৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
গাইবান্ধায় লাইসেন্সবিহীন ফার্মেসি ব্যবসা জমজমাটঃ নেই প্রশিক্ষিত ফার্মাসিস্ট? প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা সচেতন নাগরিকের!! ধান কাটতে গাইবান্ধার ৭৩ কৃষি শ্রমিক কুমিল্লা ও নন্দীগ্রামে পলাশবাড়ী হাসপাতালের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক ডাক্তার ও নার্স চাইলেন পৌর মেয়র জননেতা বিপ্লব গোবিন্দগঞ্জে পানির ট্যাঙ্কে পড়ে দুই সহোদরের মৃত্যু গাইবান্ধার স্কুলছাত্রী অপহরণের তিনদিন পর পলাশবাড়ী থেকে উদ্ধারঃ বাবলা মিয়া নামে একজন গ্রেফতার!! করনায় অসচেতন মানুষঃ মানছেনা স্বাস্থ্যবিধি ও লকডাউন; ট্রাফিক ও পুলিশের তদারকি!! করনায় বিপাকে নিম্ন আয়ের মানুষঃ গাইবান্ধা জেলা পুলিশের উদ্যোগে বগুড়ার হাওর এলাকায় কৃষি শ্রমিক প্রেরণ! গোবিন্দগঞ্জে প্রতারক স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন গোবিন্দগঞ্জে আহত ট্রলি শ্রমিক জিল্লুরের চিকিৎসায় সাহায্যের আবেদন সরকারী পুকুর খননের সময় দেড়শ বছরের পুরাতন বিষ্ণুমূর্তি উদ্ধার

গাইবান্ধার পলাশবাড়ীর পা হারানো সেই রাসেল সরকার ক্ষতিপূরণ পেলেন আরো ১০ লাখ টাকা!!

সঞ্জয় সাহাঃ
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার পার্বতীপুর গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে রাসেল ঢাকায় গ্রিনলাইনের বাস চাপায় পা হারানো ক্ষতিপূরণের টাকা পেলেন আরো ১০ লাখ টাকা।

 

এর আগেও সে আরো ১৩ লাখ ৪২ হাজার টাকা পেয়েছিল। হাইকোর্টের আদেশের অবশিষ্ট ১০ লাখ প্রদানের জন্য দুই মাসের সময়ে সম্মতি দিয়েছে রাসেল সরকার।

 

৮ ফেব্রুয়ারী সোমবার দুটি চেকে (৫ লাখ টাকা করে) ১০ লাখ টাকা দেয় গ্রিনলাইন কর্তৃপক্ষ। বাকী ১০ লাখ দুই মাসের সময় নিয়েছে বলে জানান রাসেল।

হাইকোর্ট ১ অক্টোবর ২০২০ সালে এক রায়ে তিন মাসের মধ্যে ক্ষতিপূরণ বাবদ রাসেলকে এককালীন ২০ লাখ প্রদানের নির্দেশ দেয়। এর আগে গ্রিনলাইন কর্তৃপক্ষ রাসেল সরকারকে মোট ১৩ লাখ ৪২ হাজার টাকা দেয়। হাইকোর্ট ওই টাকার বাইরে আরো ২০ লাখ টাকা দিতে আদেশ দেন।

উল্লেখ্য, ঢাকার যাত্রাবাড়ী এলাকায় মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারে ২০১৮ সালের ২৮ এপ্রিল গ্রিনলাইন পরিবহনের ধাক্কায় আহত হয়েছিলেন রাসেল সরকার। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার একটি পা কেটে ফেলতে হয়। সে সময় রাসেলকে আইনি সহায়তা প্রদানে এগিয়ে আসেন বর্তমানে সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী আসনের এমপি সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী উম্মে কুলসুম স্মৃতি। তিনি ১ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণে হাই কোর্টের রুল জারি করেন।

২০১৯ সালের ১০ এপ্রিল হাইকোর্টের এক আদেশে প্রতি মাসে ৫ লাখ করে মোট ৫০ লাখ টাকা দেয়ার নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট। এরপর জুলাই ২০২০ পর্যন্ত রাসেল ১৩ লাখ ৪২ হাজার টাকা পান। গত বছরের ১৩ অক্টোবর গ্রিনলাইন কর্তৃপক্ষ আপিল করলে টাকা দেয়া বন্ধ করে গ্রিনলাইন। পরবর্তীতে শুনানি শেষে ২০ লাখ টাকা প্রদানের আদেশ আসে। ওই ২০ লাখের প্রথম কিস্তি ১০ লাখ হাতে পেল রাসেল সরকার।

 

বিডি গাইবান্ধা/

সংবাদ টি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:১৭ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:০১ অপরাহ্ণ
  • ১৬:৩০ অপরাহ্ণ
  • ১৮:২৬ অপরাহ্ণ
  • ১৯:৪৩ অপরাহ্ণ
  • ৫:৩৩ পূর্বাহ্ণ
bdgaibandha.news©2020 All rights reserved
themesba-lates1749691102