বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৯:৪২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশ কর্তৃক ১৩ কেজি গাঁজা সহ ১জন আটক সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট গাইবান্ধা সরকারি কলেজ শাখার নবীন বরণে ছাত্রলীগ হামলাঃ বিবৃতি প্রদান শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিতঃ গাইবান্ধায় আনন্দ শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা গাইবান্ধার পলাশবাড়ীর মনোহরপুরে ঋনের-বোঝাঁ মাথায় নিয়ে বৃদ্ধার আত্মহত্যা আইএলএসটি গাইবান্ধার শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ ও ওরিয়েন্টেশন সাদুল্লাপুরে তিন ইউপি’র ভোটগ্রহণ স্থগিত; কি হবে প্রতিফলন!  পুলিশের সহায়তায় ১৯ দিন পর আলিফ ফিরে পেল তার মা বাবা কে তেল সিন্ডিকেট না করতে ডিলারদের হুশিয়ারি: গাইবান্ধায় পেট্রোল অকটেন সংকট; ব্যাবসায়ীদের সাথে জেলা প্রশাসনের আলোচনা নীলফামারীতে ছাত্রীকে শ্লীলতাহানী ও প্রধান শিক্ষককে মারধরের চেষ্টা সাদুল্লাপুরে ভ্যান আটকিয়ে জব্দ ড্রেজার মেশিন নিয়ে পালিয়েছে বালু ব্যবসায়ী; অতঃপর উদ্ধার

শিকলে বন্দী পিন্টু’র জীবন

শফিকুল ইসলাম সাগর
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ৮ এপ্রিল, ২০২২

গাইবান্ধা জেলার সাদুল্লাপুর উপজেলার ধাপেরহাট ইউনিয়নের খামারপাড়া গ্রামের হত দরিদ্র অটো চালক বুদা মিয়ার ছেলে পিন্টু মিয়া (৩৩) প্রায় দীর্ঘদিন যাবত শিকল বন্দী জীবন যাপন করছেন । সরেজমিনে গিয়ে জানা যায় দরিদ্র অটো চালক বুদা মিয়ার দুই ছেলে ও দুই মেয়ে। বড় ছেলে অনেক আগেই ব্রেন স্টোক করে মারা যায়। দুই মেয়ের মধ্যে এক মেয়ের বিবাহ দিয়েছেন। এখন বুদা মিয়ার সংসারে এক ছেলে ও এক মেয়ে। বর্তমান একমাত্র ছেলে পিন্টু মিয়া প্রায় অনেক বছর যাবত মাথার সমস্যায় ভুগছেন। এদিকে অসহায় মা বাবা মানষিক রোগী পিন্টুর চিকিৎসা করাতে গিয়ে সবশেষ করে আর্থিক সংকটে পড়ে ছেলের চিকিৎসা করাতে না পেরে ছেলেকে হারানোর ভয়ে তার পায়ে শিকল পরিয়ে দেয়া হয় প্রায় দুই বছর আগে,এখন পর্যন্ত তার পায়ে শিকল রয়েছে । বুদা মিয়ার চার সদস্যের সংসারে একমাত্র উপার্জনের মাধ্যম হল তার একটা অটোভ্যান। বুদা মিয়া ও তার স্ত্রী জানায় পিন্টু মিয়ার মাথার সমস্যা দেখা দেয় ২০০৭ সালে। দীর্ঘদিন ধরে ছেলের এমন অবস্থায় চিকিৎসা করতে গিয়ে সব শেষ। মাঝখানে কিছুদিন আগে চিকিৎসায় মোটামুটি ভালোও হয়েছিল কিন্তু আর্থিক অনটনের কারণে পরবর্তীতে আর চিকিৎসা করতে না পারায় আবারও মাথার সমস্যা বেড়ে যায়। সারাদিন অটোভ্যান চালিয়ে সংসারের খাবার যোগাড় করাই অনেক কষ্টকর হয়ে পড়েছে তার মধ্যে আবার পিন্টুর চিকিৎসা। স্বল্প আয়ে ছেলের চিকিৎসার খরচ জোগাড় করাটা অনেক কষ্টসাধ্য। বুদা মিয়া বলেন তবুও কষ্ট করে হলেও যতদুর পারছি ছেলের চিকিৎসার জন্য টাকা জোগাড়ের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। এক প্রশ্নের জবাবে পিন্টু মিয়ার বাবা বুদা মিয়া জানায় মাঝে মধ্যে উল্টা পাল্টা করে আর বেপরোয়া চলাফেরা করে, বিভিন্ন সময় জিনিস পত্র নষ্ট করে ও হঠাৎ যখন সমস্যা বেশি বেড়ে যায় তখন তার চেহারায় ভয়ংকর রুপ ধারণ করে। এ জন্য তার পায়ে লোহার শিকল পরিয়ে কন্ট্রোল করার চেষ্টা করেছি।

কিছু কিছু সময় পিন্টু মিয়া ভালো আচরণও করে এবং স্বাভাবিক কথাবার্তাও বলে। পিন্টু মিয়াকে প্রশ্ন করতে গেলে সে স্বাভাবিক ভাবেই বলে আমি মেট্রিক্স পাশ করেছি এবং কলেজে ভর্তি হয়ে কয়েকদিন ক্লাশ ও করেছি। তারপর আর ক্লাশ করতে পারিনাই। পিন্টু মিয়া আরো বলেন আমি কিছুদিন বাংলালিংক কোম্পানিতে চাকরি করি ডিলারের আন্ডারে। সেখানে কিছু দিন চাকরির পর আমার মাথার সমস্যা দেখা দেয়, তখন থেকে আমার মাথার সমস্যা ভাল হচ্ছেনা।

মানষিক রোগী পিন্টু মিয়ার মা বাবা কান্না জড়িত কণ্ঠে জানায় সমাজের বিত্তবান শ্রেণির মানুষ যদি আমার ছেলের চিকিৎসায় সহযোগিতা করত তাহলে হয়ত তাকে সুস্থ করে তোলা সম্ভব হত। পিন্টুর চিকিৎসায় এ যাবত অনেক টাকা খরচ করেছি কিন্তু আর্থিক সংকটের কারনে তার চিকিৎসা চালাতে পারছি না। একটি অটোভ্যান চালিয়ে দিনে আর কয় টাকা ইনকাম করা যায়, তা দিয়ে সংসার চালানো কষ্টকর, তার উপর আবার পিন্টুর চিকিৎসার খরচ জোগাড় করাটা আমার জন্য অনেকটাই হিমশিম খেতে হচ্ছে। তাই কেউ যদি আমার ছেলের চিকিৎসার জন্য এগিয়ে আসত তাহলে হয়ত আমার ছেলেটা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে পারতো।

সংবাদ টি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৫৫ পূর্বাহ্ণ
  • ১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ
  • ১৬:৩২ অপরাহ্ণ
  • ১৮:৩৭ অপরাহ্ণ
  • ২০:০০ অপরাহ্ণ
  • ৫:১৬ পূর্বাহ্ণ
bdgaibandha.news©2020 All rights reserved
themesba-lates1749691102